দর্শনীয় স্থান

নাম কিভাবে যাওয়া যায় অবস্থান
কেরু এন্ড কোং চুয়াডাঙ্গা হতে বাস, অটো,যোগে যাওয়া যায় দর্শনা
হজরত মালেক-উল-গাউস (রঃ) মাজার শরিফ সরাসরি জেলা সদর হতে খাড়া পূর্ব দিকে বাস,মিসুক,ইজিবাইক এর মাধমে সরোজগঞ্জ বাজার, সরোজগঞ্জ বাজার হতে দক্ষিণ দিকে ১০.০০ কিলোমিটার দূরে কালুপোল ও খাড়াগোদা বাজার হয়ে ঐতিহাসিক গড়াইটিপি অম্রবুচী মেলার মাঠে গেলে মাজারে পৌছে যাবে। ঐতিহাসিক গড়াইটিপি অম্রবুচী মেলার মাঠ ,গাইটিপি,তিতুদহ ইউনিয়ন,চুয়াডাংগা।
মুক্তিযোদ্ধা গণ কবর চুয়াডাঙ্গা জেলা শহর থেকে বাস যোগে জীবননগর তারপর জীবননগর থেকে ৯ কিঃ মিঃ পাকারাস্তা রিকসা বা ভ্যান যোগে উথলী ইউনিয়নের মাধবখালী বটতলা হয়ে মাধবখালী মুক্তিযোদ্ধা কবরস্থান যেতে হয় । জীবননগর উপজেলার ধোপাখালী সীমান্তের জিরো পয়েটে
শরৱচন্দ্রের স্মৃতি বিজড়িত- কাশীপুর জমিদার বাড়ী চুয়াডাঙ্গা জেলা শহর অথবা জীবননগর উপজেলা থেকে বাস যোগে উথলী ইউনিয়নের সন্তোষপুর বাসস্ট্যান্ড তারপর সন্তোষপুর বাসস্ট্যান্ড থেকে ৭ কিঃ মিঃ পাকারাস্তা ভ্যান যোগে কাশিপুর জমিদার বাড়ী যেতে হয় । জীবননগর উপজেলার উথলী ইউনিয়নের কাশীপুর গ্রাম
শিয়েল পীরের মাজার চুয়াডাঙ্গা জেলা সদর থেকে ১.৫ কি: মি: দুরে দৌলতদিয়াড় গ্রাম সংলগ্ন শিয়েল পীরের মাজার অবস্থিত। রিক্সা/ভ্যান যোগে যাওয়া যায়। দৌলতদিয়াড়
গড়াইটুপি অমরাবতী মেলা চুয়াডাঙ্গা শহর থেকে সরোজগঞ্জ বাজার তারপর ভ্যান যোগে তিতুদহ ইউনিয়নের গড়াইটুপি গ্রামে হযরত খাজা মালিক উল গাউস (রাঃ) এর মাজার অবস্থিত। চুয়াডাঙ্গা
পি,টি,আই (Primary Training Institute) পি.টি.আই এর দুরত্ব জেলা পরিষদ থেকে ৫ কি:মি: উপজেলা: পরিষদ থেকে ১৩ কি:মি:। আলমডাঙ্গা উপজেলা সদর থেকে ট্রেন, বাস, অটোবাইক, নসিমন, করিমন ইত্যাদিতে পি.টি.আই (Primary Training Institute) এ যাওয়া যায়। এর প্রাকৃতিক পরিবেশ বড়ই মনোরম। বিভিন্ন স্থানের স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রীরা পিকনিক স্পট হিসেবে এখানে আগমন করে থাকে। জেহালা ইউনিয়ন,আলমডাঙ্গা, চুয়াডাঙ্গা।
চুয়াডাঙ্গা নুরনগর কলোনী মাঠ পাড়ার ছোট রাস্তা চুয়াডাঙ্গা আন্তজেলা বাস টারমিনাল ইজিবাই বা রিক্সা যোগে বিএডিসি ফাম সংলগ্ন নুরনগর কলোনী পাড়া। চুয়াডাঙ্গা
চুয়াডাঙ্গা সরকারি কলেজ চুয়াডাঙ্গা বাস টার্মিনাল থেকে অটো, রিকসা করে যাওয়া যায় চুয়াডাঙ্গা
রাখাল শাহ এর মাজার চুয়াডাঙ্গা থেকে বাসযোগে ৩০ কিঃ মিঃ আসার পর পিয়ারা তলা বাজার এর স্টান এ নেমে ভ্যান অথবা রিক্সাই করে আলীপুর এর দিকে যেতে হবে এবং এই রাস্তার মধ্যে একটা বটগাছ ওয়ালা বাজার আছে সেই বাজারের কাছেই রাখাল শাহ এর মাজার জীবননগর উপজেলার বাঁকা ইউপি আলীপুরে
আলমডাঙ্গা রেলওয়ে স্টেশন আলমডাঙ্গা শহর হতে প্রায় ১.৫ কিলোমিটার। আলমডাঙ্গা শহর হতে রিকসা অথবা সিএনজি যোগে যাওয়া যায়। উপজেলাঃ আলমডাঙ্গা, জেলাঃ চুয়াডাঙ্গা
আলমডাঙ্গা বধ্যভূমি আলমডাঙ্গা শহর হতে প্রায় ২ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। আলমডাঙ্গা শহরের কালিদাসপুর ইউনিয়নের লালব্রিজ এর নিকটে এটি অবস্থিত। আলমডাঙ্গা শহর হতে যেকোন ধরণের ছোট যানবাহনে আলমডাঙ্গা বধ্যভূমিতে যাওয়া যায়। উপজেলাঃ আলমডাঙ্গা, জেলাঃ চুয়াডাঙ্গা
দর্শনীয় স্থানের নাম দৌলৎগজ্ঞ-মাজদিয়া স্থলবন্দর । যেভাবে যেতে হবেঃ চুয়াডাঙ্গা জেলা শহর থেকে বাস যোগে জীবননগর তারপর জীবননগর থেকে ৪ কিঃ মিঃ পাকারাস্তা রিকসা বা ভ্যান যোগে সীমান্ত ইউনিয়নের চ্যাংখালী রাস্তা হয়ে যেতে হয় প্রস্তাবিত দৌলৎগজ্ঞ-মাজদিয়া স্থলবন্দরে । চুয়াডাঙ্গা জেলা জীবননগর উপজেলার সীমান্ত ইউপি চ্যাংখালী রোডে
দুয়া বাওড় যেভাবে যেতে হবেঃ চুয়াডাঙ্গা জেলা শহর থেকে বাস যোগে জীবননগর তারপর জীবননগর থেকে ১২ কিঃ মিঃ পাকারাস্তা রিকসা বা ভ্যান যোগে রায়পুর ইউনিয়নের কালিগঞ্জ রাস্তা হয়ে হাসাদাহ মাঝদিয়ে যেতে হয় রায়পুর ইউনিয়নে। রায়পুর বাজারের পশ্চিম পাশে অবস্থিত
হাসাদাহ মাধ্যমিক বিদ্যালয় জীবননগর উপজেলা থেকে বাস অথবা সিএনজি করে ৫ কিঃ মিঃ আসলেই ডান দিকে দেখা যাবে হাসাদাহ বহুমুখী মাধ্যমিক বিদ্যালয় হাসাদাহ
খাজা পারেশ সাহেব এর রওজা ও গোরস্থান চুয়াডাঙ্গা জেলা শহর থেকে ৩২ কি:মি: জীবননগর উপজেলা থেকে ১৪ কি:মি: তারপর আন্দুলবাড়ীয়া কলেজ সংঙ্গগ্ন খাজা পারেশ সাহেব এর রওজা ও গোরস্থান। আন্দুলবাড়ীয়া