সচরাচর জিজ্ঞাসা

পাসপোর্ট সংক্রান্ত

(পাসপোর্ট শাখা )

ক্রমিক নং

প্রশ্ন

উত্তর

০১.

পাসপোর্টের আবেদন ফরম কোথায় পাওয়া যায় ?

পাসপোর্ট শাখা এবং পোষ্ট অফিস (বিনামূল্যে), যে কোন ফরম স্টেশনারী দোকানে (নির্ধারিত মূল্যে) অথবা যে কোন মূল কপির ফটোকপি গ্রহণযোগ্য।

০২.

পাসপোর্ট পাওয়ার পদ্ধতি ?

প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ আবেদন করার পর পুলিশ ভেরিফিকেশনে সন্তোষজনক প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে পাসপোর্ট প্রদান করা হয়।

০৩.

অতিজরুরী পাসপোর্ট কতদিনে সরবরাহ করা হয় এবং ফি কত ?

আবেদন করার ৭২ ঘন্টার মধ্যে সরবরাহ করা হয়।

৪৮ পৃষ্ঠার বই এর জন্য - ৫০০০/- (পাঁচ হাজার) টাকা।

৬৪ পৃষ্ঠার বই এর জন্য - ৬০০০/- (ছয় হাজার) টাকা।

০৪.

জরুরী পাসপোর্ট কতদিনে সরবরাহ করা হয় এবং ফি কত ?

পুলিশ প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে ১১ দিন পরে অন্যথায় ২১ দিন পরে সরবরাহ করা হয়।

৪৮ পৃষ্ঠার বই এর জন্য - ৩০০০/- (তিন হাজার) টাকা।

৬৪ পৃষ্ঠার বই এর জন্য - ৩৫০০/- (তিন হাজার পাঁচ শত) টাকা।

০৫.

সাধারণ পাসপোর্ট কতদিনে সরবরাহ করা হয় এবং ফি কত ?

পুলিশ প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে ২১ দিন পরে অন্যথায় ১ মাস পরে সরবরাহ করা হয়।

৪৮ পৃষ্ঠার বই এর জন্য - ২০০০/- (দুই হাজার) টাকা।

৬৪ পৃষ্ঠার বই এর জন্য - ২৫০০/- (দুই হাজার পাঁচ শত) টাকা।

০৬.

পাসপোর্ট নবায়ন করতে কত দিন লাগে এবং ফি কত?

অতিজরুরী- ৭২ ঘন্টার মধ্যে- ফি-২৫০০/- টাকা।

সাধারণ- ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে- ফি-১৫০০/- টাকা।

০৭.

সংশোধন, সংযোজন ও বিয়োজন করতে কত দিন লাগে এবং ফি কত ?

অতিজরুরী- ৭২ ঘন্টার মধ্যে- ফি-৫০০/- টাকা।

সাধারণ- ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে- ফি-৩০০/- টাকা।

০৮.

বিশেষ পাসপোর্ট নবায়ন করতে কত দিন লাগে এবং ফি কত?

অতিজরুরী- ৭২ ঘন্টার মধ্যে- ফি-১৫০০/- টাকা।

সাধারণ- ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে- ফি-১০০০/- টাকা।

০৯.

সংশোধন, সংযোজন ও বিয়োজন করতে কত দিন লাগে এবং ফি কত ?

অতিজরুরী- ৭২ ঘন্টার মধ্যে- ফি-৩০০/- টাকা।

সাধারণ- ১৫ কার্যদিবসের মধ্যে- ফি-২০০/- টাকা।

১০.

কখন আবেদনপত্র গ্রহণ করা হয় ?

সকাল-৯.০০ টা হতে দুপুর- ২.০০ টা পর্যন্ত।

১১.

কখন পাসপোর্ট বিতরণ করা হয় ?

বিকাল- ৪.০০ টা হতে ৫.০০ টা পর্যন্ত।

১২.

কি কি কাগজপত্র আবশ্যক ?

নতুন আবেদনঃ- নাগরিক সনদ, ভোটার আইডি কার্ড। সরকারী চাকুরীজীবীর ক্ষেত্রে নিয়োগকারী কর্তৃপক্ষের ছাড়পত্র।

নাম সংশোধনের ক্ষেত্রেঃ- নাম সংশোধনের ক্ষেত্রে এস এস সি বা সমমানের সনদ/ প্রথম শ্রেণীর ম্যাজিস্ট্রেটের আদালতের হলফনামা অথবা পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি আবশ্যক।

সন্তানের নাম সংযোজনের ক্ষেত্রে ঃ- সন্তানের জন্ম সনদ।

আগ্নেয়াস্ত্র লাইসেন্স সংক্রান্ত জিজ্ঞাসাঃ

(জেএম শাখা)

ক্রমিক নং

প্রশ্ন

উত্তর

০১.

আগ্নেয়াস্ত্র লাইসেন্সের আবেদন ফরম কোথায় পাওয়া যায় ?

জে.এম শাখায় অথবা ফটোকপি।

০২.

আগ্নেয়াস্ত্র লাইসেন্স পাওয়ার পদ্ধতি কী ?

একনালা/ দুইনালা বন্দুক / রাইফেল লাইসেন্সের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ আবেদন করার পর ডিএসবি শাখার সন্তোষজনক মতামত প্রাপ্তি সাপেক্ষে লাইসেন্স প্রদান করা হয়।

পিসতল/ রিভলবার লাইসেন্সের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ আবেদন করলে ডিএসবি শাখার সন্তোষজনক মতামত প্রাপ্তির পর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতি সাপেক্ষে লাইসেন্স প্রদান করা হয়।

০৩.

কাকে আগ্নেয়াস্ত্র লাইসেন্স প্রদান করা যায় ?

বিশিষ্ট শিল্পপতি যার বাৎসরিক আয়কর-২,০০,০০০/- টাকা। লাইসেন্সধারীর বার্ধক্যজনিত কারণে এবং মৃত্যুজনিত কারণে ওয়ারিশের অনুকূলে অস্ত্র হসতান্তরের ক্ষেত্রে লাইসেন্স প্রদান করা হয়।

০৪.

বয়স ?

একনালা/ দুইনালা বন্দুক/ রাইফেল লাইসেন্সের ক্ষেত্রে ২৫ বৎসর।

পিসতল/ রিভলবার লাইসেন্সের ক্ষেত্রে- ৩২ বৎসর।

০৫.

কি কি কাগজপত্র আবশ্যক ?

জন্ম নিবন্ধন, নাগরিকত্ব সনদপত্র, জাতীয় পরিচয়পত্র, আয়কর সার্টিফিকেট, প্রযোজ্য ক্ষেত্রে ওয়ারিশান সার্টিফিকেট।

০৬.

আগ্নেয়াস্ত্র লাইসেন্স ফি কত ?

একনালা/ দুইনালা বন্দুক লাইসেন্সের ক্ষেত্রে ফি- ২০০০/- টাকা।

পিসতল/ রিভলবার/ রাইফেল লাইসেন্সের ক্ষেত্রে ফি- ৪০০০/- টাকা।

০৭.

কখন নবায়ন করতে হয় ?

সাধারণত প্রতিবছর ডিসেম্বর মাসে নবায়ন করতে হয়। বিশেষ বিশেষ ক্ষেত্রে জেলা ম্যাজিস্ট্রেট বিশেষ ক্ষমতায় নবায়নের সময়সীমা পরবর্তী বছরের জানুয়ারী মাস পর্যন্ত বৃদ্ধি করে থাকেন।

০৮.

নবায়ন ফি কত ?

গাদা বন্দুক/তরবারির ক্ষেত্রে- ৪০০/- টাকা।

একনালা/ দুইনালা বন্দুকের লাইসেন্সের ক্ষেত্রে ফি-৮০০/- টাকা।

পিসতল/ রিভলবার/ রাইফেল এর লাইসেন্সের ক্ষেত্রে ফি- ২০০০/- টাকা।

ইট ভাটার লাইসেন্স সংক্রান্ত জিজ্ঞাসাঃ

( জে এম শাখা)

ক্রমিক নং

প্রশ্ন

উত্তর

০১.

ইট ভাটার লাইসেন্স পাওয়ার পদ্ধতি কি ?

জেলা প্রশাসক বরাবরে আবেদন করলে তা সংশিলষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট পাঠানো হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের প্রতিবেদন সন্তোষজনক হলে তা পরিবেশ অধিদপ্তরে পাঠানো হয়। পরিবেশ অধিদপ্তরের বিশেষজ্ঞ টিম সরেজমিনে পরিদর্শন করে ছাড়পত্র প্রদান করলে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে লাইসেন্স প্রদান করা হয়।

০২.

কি কি কাগজপত্র আবশ্যক ?

ট্রেড লাইসেন্স, নাগরিক সনদপত্র, আয়কর সার্টিফিকেট, ভ্যাট সার্টিফিকেট, ব্যাংক সলভেন্সি সার্টিফিকেট, লে আউট পল্যান, মৌজা ম্যাপ, খাজনার রশিদ এবং ইউনিয়ন পরিষদের অনাপত্তি।

০৩.

ইট ভাটার লাইসেন্স ফি কত ?

ফি -৫০০/- টাকা।

০৪.

ইট ভাটার লাইসেন্সের নবায়ন ফি কত ?

নবায়ন ফি- ৫০০/- টাকা (প্রতিবছরে পরিবেশ অধিদপ্তরের ছাড়পত্রের প্রেক্ষিতে)।

জুয়েলারী লাইসেন্স সংক্রান্ত জিজ্ঞাসাঃ

( ব্যবসা-বাণিজ্য শাখা)

ক্রমিক নং

প্রশ্ন

উত্তর

০১.

জুয়েলারী লাইসেন্স পাওয়ার পদ্ধতি কি ?

ব্যবসা ও বাণিজ্য শাখা থেকে নির্দিষ্ট ফরম সংগ্রহ পূর্বক পূরণ করে জেলা প্রশাসক বরাবরে আবেদন করলে তা সংশিলষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বরাবরে তদন্ত প্রতিবেদনের জন্য পাঠানো হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সন্তোষজনক প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে লাইসেন্স প্রদান করা হয়।

০২.

কি কি কাগজপত্র আবশ্যক ?

দোকান ঘরের ভারাটিয়ানামা/ দলিল, খাজনার রশিদ, ট্রেড লাইসেন্স, নাগরিক সনদপত্র, ব্যাংক সলভেন্সী সার্টিফিকেট।

০৩.

জুয়েলারী লাইসেন্স ফি কত ?

ফি -১০০০/- টাকা।

০৪.

জুয়েলারী লাইসেন্সের নবায়ন ফি কত ?

নবায়ন ফি- ৫০০/- টাকা।

লৌহজাত দ্রব্যাদি বিক্রয়ের লাইসেন্স সংক্রান্ত জিজ্ঞাসাঃ

( ব্যবসা-বাণিজ্য শাখা)

ক্রমিক নং

প্রশ্ন

উত্তর

০১.

জুয়েলারী লাইসেন্স পাওয়ার পদ্ধতি কি ?

ব্যবসা ও বাণিজ্য শাখা থেকে নির্দিষ্ট ফরম সংগ্রহ পূর্বক পূরণ করে জেলা প্রশাসক বরাবরে আবেদন করলে তা সংশিলষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বরাবরে তদন্ত প্রতিবেদনের জন্য পাঠানো হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সন্তোষজনক প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে লাইসেন্স প্রদান করা হয়।

০২.

কি কি কাগজপত্র আবশ্যক ?

দোকান ঘরের ভারাটিয়ানামা/ দলিল, খাজনার রশিদ, ট্রেড লাইসেন্স, নাগরিক সনদপত্র, ব্যাংক সলভেন্সী সার্টিফিকেট।

০৩.

লৌহজাত দ্রব্যাদি বিক্রয়ের লাইসেন্স ফি কত ?

ফি -১০০০/- টাকা।

০৪.

লৌহজাত দ্রব্যাদি বিক্রয়ের লাইসেন্সের নবায়ন ফি কত ?

নবায়ন ফি- ৫০০/- টাকা।

স্বর্ণকার (কারিগর) লাইসেন্স সংক্রান্ত জিজ্ঞাসা:

( ব্যবসা-বাণিজ্য শাখা)

ক্রমিক নং

প্রশ্ন

উত্তর

০১.

স্বর্ণকার (কারিগর) লাইসেন্স পাওয়ার পদ্ধতি কি ?

ব্যবসা ও বাণিজ্য শাখা থেকে নির্দিষ্ট ফরম সংগ্রহ পূর্বক পূরণ করে জেলা প্রশাসক বরাবরে আবেদন করলে তা সংশিলষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বরাবরে তদন্ত প্রতিবেদনের জন্য পাঠানো হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সন্তোষজনক প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে লাইসেন্স প্রদান করা হয়।

০২.

কি কি কাগজপত্র আবশ্যক ?

দোকান ঘরের ভারাটিয়ানামা/ দলিল, খাজনার রশিদ, ট্রেড লাইসেন্স, নাগরিক সনদপত্র, ব্যাংক সলভেন্সী সার্টিফিকেট।

০৩.

স্বর্ণকার (কারিগর) লাইসেন্স লাইসেন্স ফি কত ?

ফি -১০০/- টাকা।

০৪.

স্বর্ণকার (কারিগর) লাইসেন্সের নবায়ন ফি কত ?

নবায়ন ফি- ৫০/- টাকা।

লৌহজাত দ্রব্যাদি বিক্রয়ের লাইসেন্স সংক্রান্ত জিজ্ঞাসা:

( ব্যবসা-বাণিজ্য শাখা)

ক্রমিক নং

প্রশ্ন

উত্তর

০১.

লৌহজাত দ্রব্যাদি বিক্রয়ের লাইসেন্স পাওয়ার পদ্ধতি কি ?

ব্যবসা ও বাণিজ্য শাখা থেকে নির্দিষ্ট ফরম সংগ্রহ পূর্বক পূরণ করে জেলা প্রশাসক বরাবরে আবেদন করলে তা সংশিলষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বরাবরে তদন্ত প্রতিবেদনের জন্য পাঠানো হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সন্তোষজনক প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে লাইসেন্স প্রদান করা হয়।

০২.

কি কি কাগজপত্র আবশ্যক ?

দোকান ঘরের ভারাটিয়ানামা/ দলিল, খাজনার রশিদ, ট্রেড লাইসেন্স, নাগরিক সনদপত্র, ব্যাংক সলভেন্সী সার্টিফিকেট।

০৩.

লৌহজাত দ্রব্যাদি বিক্রয়ের লাইসেন্স ফি কত ?

ফি -১০০০/- টাকা।

০৪.

লৌহজাত দ্রব্যাদি বিক্রয়ের লাইসেন্সের নবায়ন ফি কত ?

নবায়ন ফি- ৫০০/- টাকা।

সিমেন্ট বিক্রয়ের লাইসেন্স সংক্রান্ত জিজ্ঞাসা:

( ব্যবসা-বাণিজ্য শাখা)

ক্রমিক নং

প্রশ্ন

উত্তর

০১.

সিমেন্ট বিক্রয়ের লাইসেন্স পাওয়ার পদ্ধতি কি ?

ব্যবসা ও বাণিজ্য শাখা থেকে নির্দিষ্ট ফরম সংগ্রহ পূর্বক পূরণ করে জেলা প্রশাসক বরাবরে আবেদন করলে তা সংশিলষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বরাবরে তদন্ত প্রতিবেদনের জন্য পাঠানো হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সন্তোষজনক প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে লাইসেন্স প্রদান করা হয়।

০২.

কি কি কাগজপত্র আবশ্যক ?

দোকান ঘরের ভারাটিয়ানামা/ দলিল, খাজনার রশিদ, ট্রেড লাইসেন্স, নাগরিক সনদপত্র, ব্যাংক সলভেন্সী সার্টিফিকেট।

০৩.

সিমেন্ট বিক্রয়ের বিক্রয়ের লাইসেন্স ফি কত ?

ফি -৫০০/- টাকা।

০৪.

সিমেন্ট বিক্রয়ের লাইসেন্সের নবায়ন ফি কত ?

নবায়ন ফি- ২৫০/- টাকা।

কাপড় (পাইকারী)বিক্রয়ের লাইসেন্স সংক্রান্ত জিজ্ঞাসা:

( ব্যবসা-বাণিজ্য শাখা)

ক্রমিক নং

প্রশ্ন

উত্তর

০১.

কাপড় (পাইকারী)বিক্রয়ের লাইসেন্স পাওয়ার পদ্ধতি কি ?

ব্যবসা ও বাণিজ্য শাখা থেকে নির্দিষ্ট ফরম সংগ্রহ পূর্বক পূরণ করে জেলা প্রশাসক বরাবরে আবেদন করলে তা সংশিলষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বরাবরে তদন্ত প্রতিবেদনের জন্য পাঠানো হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সন্তোষজনক প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে লাইসেন্স প্রদান করা হয়।

০২.

কি কি কাগজপত্র আবশ্যক ?

দোকান ঘরের ভারাটিয়ানামা/ দলিল, খাজনার রশিদ, ট্রেড লাইসেন্স, নাগরিক সনদপত্র, ব্যাংক সলভেন্সী সার্টিফিকেট।

০৩.

কাপড় (পাইকারী)বিক্রয়ের বিক্রয়ের লাইসেন্স ফি কত ?

ফি -১০০০/- টাকা।

০৪.

কাপড় (পাইকারী)বিক্রয়ের লাইসেন্সের নবায়ন ফি কত ?

নবায়ন ফি- ৫০০/- টাকা।

কাপড় (খুচরা) বিক্রয়ের লাইসেন্স সংক্রান্ত জিজ্ঞাসা:

(ব্যবসা-বাণিজ্য শাখা)

ক্রমিক নং

প্রশ্ন

উত্তর

০১.

কাপড় (খুচরা)বিক্রয়ের লাইসেন্স পাওয়ার পদ্ধতি কি ?

ব্যবসা ও বাণিজ্য শাখা থেকে নির্দিষ্ট ফরম সংগ্রহ পূর্বক পূরণ করে জেলা প্রশাসক বরাবরে আবেদন করলে তা সংশিলষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বরাবরে তদন্ত প্রতিবেদনের জন্য পাঠানো হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সন্তোষজনক প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে লাইসেন্স প্রদান করা হয়।

০২.

কি কি কাগজপত্র আবশ্যক ?

দোকান ঘরের ভারাটিয়ানামা/ দলিল, খাজনার রশিদ, ট্রেড লাইসেন্স, নাগরিক সনদপত্র, ব্যাংক সলভেন্সী সার্টিফিকেট।

০৩.

কাপড় (খুচরা)বিক্রয়ের বিক্রয়ের লাইসেন্স ফি কত ?

ফি -২০০/- টাকা।

০৪.

কাপড় (খুচরা)বিক্রয়ের লাইসেন্সের নবায়ন ফি কত ?

নবায়ন ফি- ১০০/- টাকা।

সুতা (পাইকারী)বিক্রয়ের লাইসেন্স সংক্রান্ত জিজ্ঞাসা:

( ব্যবসা-বাণিজ্য শাখা)

ক্রমিক নং

প্রশ্ন

উত্তর

০১.

সুতা (পাইকারী)বিক্রয়ের লাইসেন্স পাওয়ার পদ্ধতি কি ?

ব্যবসা ও বাণিজ্য শাখা থেকে নির্দিষ্ট ফরম সংগ্রহ পূর্বক পূরণ করে জেলা প্রশাসক বরাবরে আবেদন করলে তা সংশিলষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বরাবরে তদন্ত প্রতিবেদনের জন্য পাঠানো হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সন্তোষজনক প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে লাইসেন্স প্রদান করা হয়।

০২.

কি কি কাগজপত্র আবশ্যক ?

দোকান ঘরের ভারাটিয়ানামা/ দলিল, খাজনার রশিদ, ট্রেড লাইসেন্স, নাগরিক সনদপত্র, ব্যাংক সলভেন্সী সার্টিফিকেট।

০৩.

সুতা (পাইকারী)বিক্রয়ের বিক্রয়ের লাইসেন্স ফি কত ?

ফি -৪০০/- টাকা।

০৪.

সুতা (পাইকারী)বিক্রয়ের লাইসেন্সের নবায়ন ফি কত ?

নবায়ন ফি- ২০০/- টাকা।

সুতা (খুচরা) বিক্রয়ের লাইসেন্স সংক্রান্ত জিজ্ঞাসা:

( ব্যবসা-বাণিজ্য শাখা)

ক্রমিক নং

প্রশ্ন

উত্তর

০১.

সুতা (খুচরা)বিক্রয়ের লাইসেন্স পাওয়ার পদ্ধতি কি ?

ব্যবসা ও বাণিজ্য শাখা থেকে নির্দিষ্ট ফরম সংগ্রহ পূর্বক পূরণ করে জেলা প্রশাসক বরাবরে আবেদন করলে তা সংশিলষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বরাবরে তদন্ত প্রতিবেদনের জন্য পাঠানো হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সন্তোষজনক প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে লাইসেন্স প্রদান করা হয়।

০২.

কি কি কাগজপত্র আবশ্যক ?

দোকান ঘরের ভারাটিয়ানামা/ দলিল, খাজনার রশিদ, ট্রেড লাইসেন্স, নাগরিক সনদপত্র, ব্যাংক সলভেন্সী সার্টিফিকেট।

০৩.

সুতা (খুচরা)বিক্রয়ের লাইসেন্স ফি কত ?

ফি -১০০/- টাকা।

০৪.

সুতা (খুচরা)বিক্রয়ের লাইসেন্সের নবায়ন ফি কত ?

নবায়ন ফি- ৫০/- টাকা।

দুগ্ধখাদ্য বিক্রয়ের লাইসেন্স সংক্রান্ত জিজ্ঞাসা:

( ব্যবসা-বাণিজ্য শাখা)

ক্রমিক নং

প্রশ্ন

উত্তর

০১.

দুগ্ধখাদ্য বিক্রয়ের লাইসেন্স পাওয়ার পদ্ধতি কি ?

ব্যবসা ও বাণিজ্য শাখা থেকে নির্দিষ্ট ফরম সংগ্রহ পূর্বক পূরণ করে জেলা প্রশাসক বরাবরে আবেদন করলে তা সংশিলষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বরাবরে তদন্ত প্রতিবেদনের জন্য পাঠানো হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সন্তোষজনক প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে লাইসেন্স প্রদান করা হয়।

০২.

কি কি কাগজপত্র আবশ্যক ?

দোকান ঘরের ভারাটিয়ানামা/ দলিল, খাজনার রশিদ, ট্রেড লাইসেন্স, নাগরিক সনদপত্র, ব্যাংক সলভেন্সী সার্টিফিকেট।

০৩.

দুগ্ধখাদ্য বিক্রয়ের লাইসেন্স ফি কত ?

ফি -৫০/- টাকা।

০৪.

সুতা (পাইকারী)বিক্রয়ের লাইসেন্সের নবায়ন ফি কত ?

নবায়ন ফি- ২৫/- টাকা।

সিগারেট (পাইকারী বিক্রেতা ও বন্টনকারী) লাইসেন্স সংক্রান্ত জিজ্ঞাসা:

( ব্যবসা-বাণিজ্য শাখা)

ক্রমিক নং

প্রশ্ন

উত্তর

০১.

সিগারেট (পাইকারী বিক্রেতা ও বন্টনকারী) লাইসেন্স পাওয়ার পদ্ধতি কি ?

ব্যবসা ও বাণিজ্য শাখা থেকে নির্দিষ্ট ফরম সংগ্রহ পূর্বক পূরণ করে জেলা প্রশাসক বরাবরে আবেদন করলে তা সংশিলষ্ট উপজেলা নির্বাহী অফিসারের বরাবরে তদন্ত প্রতিবেদনের জন্য পাঠানো হয়। উপজেলা নির্বাহী অফিসারের সন্তোষজনক প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে লাইসেন্স প্রদান করা হয়।

০২.

কি কি কাগজপত্র আবশ্যক ?

দোকান ঘরের ভারাটিয়ানামা/ দলিল, খাজনার রশিদ, ট্রেড লাইসেন্স, নাগরিক সনদপত্র, ব্যাংক সলভেন্সী সার্টিফিকেট।

০৩.

বিক্রয়ের লাইসেন্স ফি কত ?

ফি -১০০/- টাকা।

০৪.

লাইসেন্সের নবায়ন ফি কত ?

নবায়ন ফি- ৫০/- টাকা।